Read Time:3 Minute, 41 Second

বাংলাদেশের চিনি শিল্প একটি প্রাণবন্ত শিল্প হিসেবে পুনরায় আবির্ভূত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী উৎপাদন বৃদ্ধি ও আমদানি কমানোর চেষ্টা করছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সরকার আখ চাষীদের উচ্চ ফলনশীল আখ এবং প্রযুক্তিগত সহায়তাউদ্ভাবন করছে।

ঝিনাইদহ জেলার মোবারকগঞ্জ সুগার মিলের বিক্ষোভ মাঠ পরিদর্শন শেষে শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন।

শিল্প সচিব বলেন, ‘ইকসুর জাতের প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে মানসম্পন্ন আখ উৎপাদনে সহায়তা ও উৎসাহিত করতে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে বিএটি বাংলাদেশ।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এই সম্ভাবনাময় শিল্পকে এগিয়ে নিতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছি, যার মধ্যে বিএটি বাংলাদেশের এই মডেল প্রকল্প অন্যতম। আমি বিশ্বাস করি, এ ধরনের উদ্যোগ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়লে দেশের প্রান্তিক কৃষকরা আখ চাষে উৎসাহিত হবে এবং এর ফলে চিনিকলগুলো আবার গতি ফিরে পাবে।

সুলতানা আরও বলেন, বন্ধু সেভা অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশ সুগার অ্যান্ড ফুড ইন্ডাস্ট্রি কর্পোরেশন ৬৫,০ এরও বেশি আখ চাষীদের কাছে পৌঁছেছে এবং আখ চাষের উন্নত কৌশল এবং তাদের প্রয়োগের বিষয়ে তাদের অবহিত করেছে।

তিনি আরও বলেন, কৃষকরা তাদের মোবাইল ফোনে আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্যে এসএমএস বার্তা পেয়েছেন। হ্যালো ফার্মার্স অ্যাপে মজুত থাকা ডেটাবেসে থাকা মোবাইল নম্বরে ফোন করে আখ চাষিদের সমস্যার কথা জানিয়ে তা দ্রুত সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে শিল্প মন্ত্রকের তরফে।

বিএটি বাংলাদেশের সাথে যৌথভাবে বিএসএফআইসি ৫টি চিনিকল খামারের ৩০.২৫ একর জমির উপর বিক্ষোভ আখ ের মাঠ স্থাপন করেছে এবং প্রগতিশীল আখ চাষীদের আখ চাষের সর্বোত্তম পদ্ধতির মাধ্যমে আখের ফলন ৫০-৬০ মিলিয়ন টনে উন্নীত করা হয়েছে, যার অগ্রগতি এখন পর্যন্ত অত্যন্ত সন্তোষজনক।

বিএসএফআইসির চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর রহমান অপু বলেন, ‘চিনির ওপর আমদানি নির্ভরতা কমাতে টেকসই কৃষি ব্যবস্থার বিকল্প নেই। আমরা বিএটি বাংলাদেশের মাধ্যমে এই প্রকল্পে যে সাফল্য পেয়েছি তা কৃষকদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চাই, যাতে তারা আগামী দিনে আখ চাষে আরও বেশি উৎসাহিত হয়।

ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো (বিএটি) বাংলাদেশের চেয়ারম্যান গোলাম মঈন উদ্দিন, চিনিকলের কর্মকর্তা ও স্থানীয় আখ চাষিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগে গুগল ও মেটাকে জরিমানা করল দক্ষিণ কোরিয়া Previous post গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগে গুগল ও মেটাকে জরিমানা করল দক্ষিণ কোরিয়া
10. সিংহ সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - সিংহ © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ২০০ জন মানুষ হত্যা করে) 9. হিপ্পোস সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - হিপ্পোস © গেটি ইমেজেস (বছরে ৫০০ মানুষ হত্যা করে) 8. হাতি সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - এলিফ্যান্টস © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ২০০ জন মানুষ হত্যা করে) 7. কুমির সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - কুমির © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ১,০০০ মানুষ হত্যা করে) 6. স্করপিয়ন সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - স্করপিয়ন গেটি © ইমেজেস (প্রতি বছর ১,০০০ মানুষ হত্যা করে) 5. হত্যাকারী বাগ (Chagas রোগ) সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - Assassin Bugs © Getty Images (প্রতি বছর ১০,০০০ মানুষ হত্যা করে) 4. কুকুর (Rabies) সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - কুকুর © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ১০,০০০ মানুষ হত্যা করে) 3. সাপ সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - সাপ © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ১,০০০ মানুষ হত্যা করে) 2. মানুষ (শুধুমাত্র নরহত্যা) সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - হিউম্যান © গেটি ইমেজেস (প্রতি বছর ১,০০০ মানুষ হত্যা করে) 1. মশা সবচেয়ে মারাত্মক প্রাণী - মশার © গেটি ইমেজেস (ম্যালেরিয়ার মতো রোগের বিস্তারের মাধ্যমে প্রতি বছর 725,000 জনকে হত্যা করে) Next post শীর্ষ ১০: বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক প্রাণী
Close
%d bloggers like this: